‘মৃত’ ব্যক্তি আদালতে এসে বললেন, ‘আমি জীবিত’ !

32d503b4cb6d92a0749e59b33d11478b-596cd213a7518.jpgহজে যেতে ইচ্ছুক এক ব্যক্তিকে পুলিশ প্রতিবেদন এবং  ধর্ম মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে দেখানো হচ্ছে ‘মৃত’ হিসেবে, অথচ তিনি সশরীরে আদালতে উপস্থিত হয়ে বললেন, ‘আমি জীবিত।’ এ ভুক্তভোগীর নাম আজাদ হোসেন ভূঁইয়া। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া থানার এ বাসিন্দার দাবি, পুলিশ ভেরিফিকেশনের সময় ‘খরচপাতি’ না দেওয়ায় ইচ্ছেকৃতভাবে তাকে মৃত দেখানো হয়েছে। এ ঘটনার প্রতিকার চেয়ে সোমবার হাইকোর্টে রিট আবেদন করেছেন তিনি । তার এই রিট আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে রুলসহ আদেশ দেন হাইকোর্ট। সেই সঙ্গে আখাউড়া থানার ওসিকে ২৩ জুলাই সশরীরে হাজির হয়ে এ বিষয়ে ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়েছে।

আজাদ হোসেন ভূঁইয়া জানান, হজে যাওয়ার জন্য তিনি ৪-৫ মাস আগে নিবন্ধন করেন। টাকাও জমা দেন। পুলিশ ভেরিফিকেশনের জন্য আখাউড়া থানা থেকে দারোগা আবুল কালাম একদিন তাকে ফোন দেন। তিনি তখন ঢাকায় ছিলেন। দারোগা ফোনে তাকে বলেন, ‘আজকের দিনের মধ্যে থানায় এসে যোগাযোগ করতে হবে।’

আমি (আজাদ) তাকে বলি, ‘‘আমার পক্ষে সম্ভব না। এসময় দারোগা বলেন, ‘আপনার জাতীয় পরিচয়পত্র এবং পাসপোর্টের ফটোকপিসহ আপনার ভাইকে পাঠান। ’ আমার ভাই থানায় গেলে জানানো হয়, আমার নামে মামলা আছে। আমাকেই যেতে হবে। পরদিন আমি থানায় যাই।  ওই দারোগার সঙ্গে দেখা করি। তিনি  তখন আমাকে বলেন,  ‘আপনার নামে তো মামলা আছে। তারপর আবার আপনি বিএনপি করেন। ভেরিফিকেশন পেতে খরচাপাতি করতে হবে।’  আমি বললাম, আমার নামে দু’টি মামলা আছে, দু’টিই রাজনৈতিক। আমি প্রথম থেকেই জামিনে আছি। আমি কোনও খরচাপাতি দেবো না।’’

ধর্ম মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে দেওয়া আজাদ হোসেন ভুইয়ার তথ্য

বাংলা ট্রিবিউনকে তিনি (আজাদ) বলেন, ‘এরপর ধর্ম মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে ২০/৬/১৭ তারিখের সর্বশেষ আপডেটে দেখি, আমাকে মৃত দেখানো হয়েছে।  আজকে (১৭ জুলাই) পর্যন্ত ধর্ম মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে আমাকে মৃত দেখানো হচ্ছে। অথচ আমি আপনাদের সামনে দাঁড়িয়ে আছি। তাই বাধ্য হয়ে আমি উচ্চ আদালতের দ্বারস্থ হয়ে হাইকোর্টে রিট আবেদন করেছি। আমি হজে যেতে চাই।’

আজাদ হোসেন ভূঁইয়ার আইনজীবী মো. কায়সার জাহিদ ভূঁইয়া বলেন, ‘২০১৭ সালে হজ গমনে ইচ্ছুক ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া থানার আজাদ হোসেন ভূঁইয়াকে পুলিশ প্রতিবেদনে মৃত দেখানোয়, ওই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে (ওসি) তলব করেছেন হাইকোর্ট। আগামী ২৩ জুলাই তাকে সশরীরে হাজির হয়ে এ ঘটনার ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়েছে। সোমবার (১৭ জুলাই)  বিচারপতি সৈয়দ মোহাম্মদ দস্তগীর হোসেন ও বিচারপতি আতাউর রহমান খানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এই আদেশ দেন।’

 Join the Conversations on this content here –

32d503b4cb6d92a0749e59b33d11478b-596cd213a7518.jpg
Click/Tap this image to Join the Conversations

🖌 রমজানের শুরু থেকে মেঘ-বৃষ্টিতে ভালোই কেটেছে রোজাদারদের দিনগুলো !

রমজানের শুরু থেকে মেঘ-বৃষ্টিতে ভালোই সময় কেটেছে রোজাদারদের। তবে কয়েকদিন ধরে আবারও উষ্ণতা বাড়তে থাকায় রোজাদারদের কষ্ট বাড়তে থাকে।

অবশ্য শুক্রবার সকালের দিক থেকেই আকাশে মেঘ জমতে শুরু করেছে। আর আবহাওয়ার পূর্বাভাসও বলছে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি থেকে ভারী বর্ষণ হতে পারে।

সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, রাজশাহী, রংপুর, ঢাকা, ময়মনসিংহ, খুলনা, বরিশাল চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ী দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে।

সেই সঙ্গে ফরিদপুর, মাঈজদী কোর্ট, রংপুর, দিনাজপুর, সৈয়দপুর, সাতক্ষীরা, যশোর, চুয়াডাঙ্গা, কুমারখালী ও ভোলা অঞ্চলসহ রাজশাহী বিভাগের ওপর দিয়ে বয়ে যাওয়া মৃদু তাপপ্রবাহ কিছুটা প্রশমিত হতে পারে।

🖌 ই-পাসপোর্টের পর ই-গেট আসছে | চোখের মণিতে খুলবে দেশের বিমানবন্দরের ফটক

আপনি পাসপোর্ট নিয়ে দাঁড়িয়ে আছেন বিমানবন্দরে। ইমিগ্রেশনের সামনে লাগানো ‘ই-গেট।’ ওই ‘ই-গেটের’ মনিটরে আপনার পাসপোর্টটি রাখবেন। আপনার চোখের মণি ‘রিড’ করা হবে। পাসপোর্টে দেওয়া চোখের মণির সঙ্গে যদি তা মিলে যায়, তবেই খুলে যাবে দরজা! আর নয়তো খুলবে না!

বাংলাদেশেই হবে ওই ব্যবস্থা। এরইমধ্যে সরকারের উচ্চ পর্যায়ে বিমানবন্দরে এ ধরনের ডিজিটাল ব্যবস্থা চালু করার প্রস্তাব দিয়েছে বহিরাগমণ ও পাসপোর্ট অধিদপ্তর।

অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মো. মাসুদ রেজওয়ান এনটিভি অনলাইনকে এ কথা জানান। তিনি আশা করছেন, আগামী ডিসেম্বর মাসের মধ্যে এ ব্যাপারে একটি সাড়া পাবেন তিনি।

মেজর জেনারেল মো. মাসুদ রেজওয়ান বলেন, ‘আমরা এ প্রস্তাবনা দিয়েছি। আশা করি আগামী ডিসেম্বরের মধ্যেই প্রস্তাবটির একটা ফয়সালা হবে।’

মেজর জেনারেল মো. মাসুদ রেজওয়ান এনটিভি অনলাইনকে বলেন, ‘আমরা যন্ত্রে পাঠযোগ্য পাসপোর্টের (এমআরপি) পরিবর্তে ‘ই-পাসপোর্ট’ দিতে চাচ্ছি। আর ‘ই-পাসপোর্ট’ করার প্রস্তাবও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে দেওয়া হয়েছে।’

মাসুদ রেজওয়ান বলেন, ‘ই-পাসপোর্টে মানুষের ১০ আঙুলের ছাপ ও চোখের মণির ছবি নেওয়া হবে। আর বিমানবন্দরে থাকবে ‘ই-গেট।’ মানুষ ওই ‘ই-পাসপোর্ট’ স্থাপন করা ‘ই-গেটে’র সামনে রাখবে। তখন গেটের সামনে দাঁড়িয়ে থাকা মানুষটির ‘চোখের মণি’ পাঠ করে নিবে যন্ত্র। আর পাসপোর্টের সঙ্গে ওই ‘চোখের মণি’ মিলে গেলেই স্বয়ংক্রিয় ভাবে খুলে যাবে ই-গেট। এর মানে ইমিগ্রেশন পারও হয়ে গেছেন ওই ব্যক্তি। যদি ই পাসপোর্ট আর ই-গেটের মনিটরে দেওয়া চোখের মণি না মিলে তবে ওই দরজা খুলবে না। তখনই বুঝতে হবে সমস্যা আছে ওই পাসপোর্টে।

মেজর জেনারেল মাসুদ রেজওয়ান জানিয়েছেন, চোখে যদি কোনো সমস্যা হয় তবে কোনো সমস্যা হবে না। তিনি বলেন, ‘চোখের কর্ণিয়ার কোনো পরিবর্তন হয় না। আর পাসপোর্ট করার সময় চোখের কর্ণিয়া থেকেই তো আমরা প্রথম ইমপ্রেশন নেব। মানুষের চোখের কর্ণিয়া সব সময় স্থির থাকে।’

🖌 ১০ মিনিট আগে আজান, বিটিভির তিনজনের বিরুদ্ধে মামলা

ইফতারের ১০ মিনিট আগেই মাগরিবের আজান প্রচার করায় বিটিভি চেয়ারম্যান, মহাপরিচালক ও সংবাদপাঠকের বিরুদ্ধে ঢাকা মহানগর মুখ্য বিচারিক আদালতে মামলা হয়েছে।

রোববার ঢাকা মহানগর হাকিম মো. আবু সাঈদের আদালতে ঢাকা বারের আইনজীবী এনামুল হক খান মামলাটি করেন।

🖌 আপন জুয়েলার্সের স্বর্ণ যাচ্ছে কেন্দ্রীয় ব্যাংকে

বৈধ কাগজ দেখাতে না পারায় আপন জুয়েলার্সের পাঁচটি শোরুম থেকে সাড়ে ১৩ মণ সোনা ও ৪২৭ গ্রাম হীরা আনুষ্ঠানিকভাবে জব্দ করে বাংলাদেশ ব্যাংকে নেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু করেছে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতর।

শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতরের যুগ্ম পরিচালক শাফিউর রহমান জানান, রোববার সকাল থেকেই আপন জুয়েলার্সের পাঁচটি শোরুম থেকে সোনা ও হীরা জব্দ করা শুরু। পর্যায়ক্রমে এসব বাংলাদেশে ব্যাংকে জমা দেওয়া হবে।

এর আগে শনিবার শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতরের মহাপরিচালক ড. মইনুল খান সমকালকে জানান, বৈধ কাগজ দেখাতে না পারায় আপন জুয়েলার্সের সাড়ে ১৩ মণ স্বর্ণ ও ৪২৭ গ্রাম হীরা আনুষ্ঠানিকভাবে জব্দ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতর। রোববার এসব স্বর্ণালঙ্কার বাংলাদেশ ব্যাংকে হস্তান্তর করা হবে।

তিনি বলেন, ‘আত্মপক্ষ সমর্থনে আপন জুয়েলার্স কর্তৃপক্ষকে তিনবার শুনানির সুযোগ দিলেও তারা স্বর্ণের কোনোপ্রকার বৈধ কাগজ দেখাতে পারেনি। কোনো কাগজ দেখাতে না পারায় আনুষ্ঠানিকভাবে সেগুলো জব্দের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।’

গত ১৪ ও ১৫ মে শুল্ক গোয়েন্দারা আপন জুয়েলার্সের গুলশান ডিসিসি মার্কেট, গুলশান অ্যাভিনিউ, উত্তরা, সীমান্ত স্কোয়ার এবং মৌচাকের পাঁচটি শোরুমে অভিযান চালিয়ে প্রায় সাড়ে ১৩ মণ স্বর্ণ ও ৪২৭ গ্রাম হীরা সাময়িকভাবে জব্দ করে।

এরপর আত্মপক্ষ সমর্থনে আপন জুয়েলার্স কর্তৃপক্ষকে তিন বার শুনানির সুযোগ দিলেও তারা এসব স্বর্ণ-হীরার কোনও প্রকার বৈধ কাগজ দেখাতে পারেনি। তবে আপন জুয়েলার্সের মালিকপক্ষের দেওয়া ১৮২ জনের তালিকার মধ্যে ৮৫ জন প্রকৃত গ্রাহককে মেরামতের জন্য জমা রাখা প্রায় ২ দশমিক ৩ কেজি স্বর্ণালঙ্কার অক্ষত অবস্থায় ফেরত দেওয়া হয়েছে।