Grand Opening Uttara Barcode

If you want to go quickly, go alone.
If you want to go far, go together.
-African Proverb.

বারকোডের যাত্রা প্রথম শুরু হয় চট্টগ্রামের নাসিরাবাদের একটি মাত্র ছোট্ট শাখা দিয়ে। এরপর বারকোডের সাথে যোগ দিলেন একদল বারকোড ফ্যান, যাদের আমরা ভালবেসে নাম দিয়েছি ‘বারকোডিয়ান’।

বারকোডিয়ানদের উৎসাহ এবং ভালবাসা আমাদেরকে বড় স্বপ্ন দেখার সাহস দিয়েছে। সাহস দিয়েছে সারা বাংলাদেশে বারকোডকে ছড়িয়ে দেওয়ার।

আপনাদের সাহস এবং ভালবাসাকে সাথে নিয়ে ইনশাআল্লাহ আগামী ৮ই জুন ২০১৭ তারিখে বারকোড ক্যাফের উত্তরা শাখার যাত্রা শুরু হবে। উত্তরার সাত নম্বর সেক্টরের এই বারকোড ঢাকায় আমাদের দ্বিতীয় শাখা।
আশাকরছি এই শুভ যাত্রায় সবসময়ের মত এবারো আপনারা আমাদের সাথে থাকবেন এবং আমাদেরকে সফল হতে সাহায্য করবেন।

সবশেষে সকল বারকোডিয়ানদেরকে অনেক অনেক ধন্যবাদ দিতে চাই সবকিছুর জন্য, সবসময় সাথে থাকার জন্য।

18813166_10155041271838941_5728002885538628831_n

🖌 আপন জুয়েলার্সের স্বর্ণ যাচ্ছে কেন্দ্রীয় ব্যাংকে

বৈধ কাগজ দেখাতে না পারায় আপন জুয়েলার্সের পাঁচটি শোরুম থেকে সাড়ে ১৩ মণ সোনা ও ৪২৭ গ্রাম হীরা আনুষ্ঠানিকভাবে জব্দ করে বাংলাদেশ ব্যাংকে নেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু করেছে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতর।

শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতরের যুগ্ম পরিচালক শাফিউর রহমান জানান, রোববার সকাল থেকেই আপন জুয়েলার্সের পাঁচটি শোরুম থেকে সোনা ও হীরা জব্দ করা শুরু। পর্যায়ক্রমে এসব বাংলাদেশে ব্যাংকে জমা দেওয়া হবে।

এর আগে শনিবার শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতরের মহাপরিচালক ড. মইনুল খান সমকালকে জানান, বৈধ কাগজ দেখাতে না পারায় আপন জুয়েলার্সের সাড়ে ১৩ মণ স্বর্ণ ও ৪২৭ গ্রাম হীরা আনুষ্ঠানিকভাবে জব্দ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতর। রোববার এসব স্বর্ণালঙ্কার বাংলাদেশ ব্যাংকে হস্তান্তর করা হবে।

তিনি বলেন, ‘আত্মপক্ষ সমর্থনে আপন জুয়েলার্স কর্তৃপক্ষকে তিনবার শুনানির সুযোগ দিলেও তারা স্বর্ণের কোনোপ্রকার বৈধ কাগজ দেখাতে পারেনি। কোনো কাগজ দেখাতে না পারায় আনুষ্ঠানিকভাবে সেগুলো জব্দের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।’

গত ১৪ ও ১৫ মে শুল্ক গোয়েন্দারা আপন জুয়েলার্সের গুলশান ডিসিসি মার্কেট, গুলশান অ্যাভিনিউ, উত্তরা, সীমান্ত স্কোয়ার এবং মৌচাকের পাঁচটি শোরুমে অভিযান চালিয়ে প্রায় সাড়ে ১৩ মণ স্বর্ণ ও ৪২৭ গ্রাম হীরা সাময়িকভাবে জব্দ করে।

এরপর আত্মপক্ষ সমর্থনে আপন জুয়েলার্স কর্তৃপক্ষকে তিন বার শুনানির সুযোগ দিলেও তারা এসব স্বর্ণ-হীরার কোনও প্রকার বৈধ কাগজ দেখাতে পারেনি। তবে আপন জুয়েলার্সের মালিকপক্ষের দেওয়া ১৮২ জনের তালিকার মধ্যে ৮৫ জন প্রকৃত গ্রাহককে মেরামতের জন্য জমা রাখা প্রায় ২ দশমিক ৩ কেজি স্বর্ণালঙ্কার অক্ষত অবস্থায় ফেরত দেওয়া হয়েছে।

🖌 আপন জুয়েলার্সের সাড়ে ১৩ মণ সোনা জব্দ

বনানীতে দুই ছাত্রী ধর্ষণকারী সাফাতের বাবার মালীকানাধীন আপন জুয়েলার্সের সাড়ে ১৩ মণ সোনা ও ৪২৭ গ্রাম হিরা কাস্টমসের জিম্মায় নেওয়ার কাজ শুরু হয়েছে।আজ রোববার সকাল ৯টা থেকে আপন জুয়েলার্সের গুলশান ডিসিসি মার্কেট, গুলশান অ্যাভিনিউ, উত্তরা, সীমান্ত স্কয়ার ও মৌচাকের পাঁচটি শোরুমে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের উপস্থিতিতে সোনা জব্দের কার্যক্রম শুরু হয়।

শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মইনুল খান জানান, এর আগে এই পাঁচটি শো রুমে শুল্ক গোয়েন্দারা অভিযান চালায়। তখন এই সাড়ে ১৩ মণ সোনা ও সোনার অলংকার এবং ৪২৭ গ্রাম হিরার বৈধ কাগজপত্র চাইলে মালিকেরা তা দেখাতে পারেননি। এগুলোর মূল্য প্রায় আড়াই শ কোটি টাকা। এরপর আপন জুয়েলার্সের মালিক দিলদার আহমেদ ও তার দুই ভাইকে কাকরাইলে কার্যালয়ে তলব করা হয়। দুই দফায় তারা সশরীরে হাজির হন তবে বৈধ কোনো কাগজপত্র দেখাতে পারেননি। সর্বশেষ তারা ৩০ মে অধিদপ্তরে যে কাগজপত্র পাঠিয়েছিলেন তাও বৈধ নয়। এ কারণে এই পাঁচটি শো রুমের স্বর্ণালংকার জব্দ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে অধিদপ্তর।মইনুল খান বলেন, এগুলো ঢাকা কাস্টম হাউসের শুল্ক গুদামের মাধ্যমে বাংলাদেশ ব্যাংকে জমা দেওয়া হবে। এরপর আইন অনুযায়ী তা নিষ্পত্তি করা হবে। এখন জব্দ তালিকা তৈরি হচ্ছে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা উপস্থিত আছেন। জব্দ তালিকা শেষে তাদের তত্ত্বাবধানে নিরাপত্তা বেষ্টনীর মাধ্যমে এগুলো বাংলাদেশ ব্যাংকে নিয়ে যাওয়া হবে।রাজধানীর বনানীতে বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই ছাত্রী ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি শাফাত আহমেদের বাবা আপন জুয়েলার্সের মালিক দিলদার আহমেদের ‘অবৈধ সম্পদ’ খুঁজতে তাঁর প্রতিষ্ঠানের পাঁচটি বিক্রয়কেন্দ্রে গত ১৪ ও ১৫ মে অভিযান চালায় শুল্ক গোয়েন্দা অধিদপ্তর। প্রতিষ্ঠানটির গুলশান ডিসিসি মার্কেট, গুলশান অ্যাভিনিউ, উত্তরা, সীমান্ত স্কয়ার ও মৌচাকের পাঁচটি শোরুমে অভিযান চালিয়ে প্রায় সাড়ে ১৩ মণ সোনা ও ৪২৭ গ্রাম হিরা সাময়িকভাবে জব্দ করেন।শুল্ক গোয়েন্দা দপ্তর জানায়, আপন জুয়েলার্সের দেওয়া ১৮২ জনের তালিকার মধ্যে ৮৫ জন গ্রাহককে ২ দশমিক ৩ কেজি স্বর্ণালংকার অক্ষত অবস্থায় ফেরত দেওয়া হয়েছে, যা ওই সব গ্রাহক অলংকার তৈরি ও মেরামতের জন্য দিয়েছিলেন। বাকি সোনার বিষয়ে আপন জুয়েলার্স কোনো বৈধ কাগজ দেখাতে পারেনি।

🖌 এবার ‘পিক এন্ড ড্রপ’ হবে মোটর বাইকে !

ইদানীং ঢাকায় বেশ কিছু স্মার্টফোন অ্যাপভিত্তিক বাহন সেবা চালু হয়েছে। বাস আর রিকশা-অটোরিকশাচালকদের দৌরাত্ম্য থেকে বাঁচতে অনেকেই এখন এই সেবা বেছে নিচ্ছেন। হাত তুলে আর রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকতে হবে না। হাতের মুঠোয় চলে এসেছে ভাড়ায় চালিত মোটরবাইক।

জাপানি মোটরসাইকেল ব্র্যান্ড ইয়ামাহার আরওয়ানফাইভ, এফজেড, ফেজার মোটরসাইকেল তরুণদের কাছে বেশ জনপ্রিয়। ঢাকার কাজীপাড়ায় ইয়ামাহা মোটরসাইকেল দেখছেন একজন তরুণ l ছবি: প্রথম আলোজাপানি মোটরসাইকেল ব্র্যান্ড ইয়ামাহার আরওয়ানফাইভ, এফজেড, ফেজার মোটরসাইকেল তরুণদের কাছে বেশ জনপ্রিয়। ঢাকার কাজীপাড়ায় ইয়ামাহা মোটরসাইকেল দেখছেন একজন তরুণ l ছবি: প্রথম আলোহাতে বেশি টাকা নেই, সিএনজি বা প্রাইভেট কারে ওঠার সাধ্যও নেই। এই গরমে গণপরিবহনে উঠতেও মন চাইছে না। তাতে কী? রাজধানীর যেকোনো জায়গায় দ্রুত যেতে এখন ভাড়ায় মিলছে মোটরসাইকেল। মোবাইলের প্লে স্টোর থেকে থেকে দ্রুত নামিয়ে নেন পাঠাও, আমার রাইড, আমার বাইক, শেয়ার এ মোটরবাইক-স্যাম, এ–জাতীয় অ্যাপ। ডাকুন মোটরবাইক, পৌঁছে যান গন্তব্যস্থানে।

ঢাকা রাস্তায় সহসাই এই সেবা পাওয়া যাচ্ছে। নির্ধারিত অ্যাপে গন্তব্য নির্ধারণ করে অনুরোধ পাঠালে গ্রাহক যেখানে আছেন, নিকটস্থ চালক সেখানে পৌঁছে যাবেন। গন্তব্যস্থলে পৌঁছাতে দূরত্ব আর যানজট মিলে কত খরচ হলো তা-ও জানা যাবে অ্যাপের পর্দায়। আর এ সেবা তরুণ যুবকদের উপার্জনের পথও খুলেছে।


ছবি: পাঠাও ডট কম
গত রোববার পাঠাও অ্যাপের মাধ্যমে পাওয়া গেল আরিফুর রহমানকে। হান্ক মডেলের মোটরবাইক নিয়ে হাজির হলেন মহাখালীতে। তিনি আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির তৃতীয় সেমিস্টারের ছাত্র। জানালেন, পাঠাও–এর বেইস ভাড়া ২০ টাকা এবং এরপর প্রতি কিলোমিটারে ভাড়া ১০ টাকা। ভাড়া নগদে পরিশোধ করতে হবে। তিনি বলেন, হাতখরচ মেটাতে আগে এক শোরুমে কাজ করতেন। এখন মোটর চালিয়েই হাত খরচ আসে। চাইলে এক দিনেই খরচ বাদে ৫০০ টাকা আয় করা যায়।

একটি দেশীয় সংস্থার কর্মী রুবাইনার অফিস গুলশানে। প্রতিদিন কাজ শেষে ফিরতে হয় শেওড়াপাড়ার বাসায়। বাসায় ফিরতে নিয়মিত ভোগান্তিতে পড়তে হতো তাঁকে। তবে এখন নিয়মিত মোটরসাইকেলে ফিরছেন বাসায়। অন্যের মোটরসাইকেলে ওঠায় পরিবারও কোনো আপত্তি করছে না।

রুবাইনা বলেন, বাসায় ছোট বাচ্চা রেখে আসতে হয়। অফিস শেষ করে বাসায় পৌঁছাতে দুই–তিন ঘন্টা লেগে যায়। ফলে বাসায় সময় দেওয়া সম্ভব হয় না। এখন আর সমস্যা হচ্ছে না।

অ্যাপভিত্তিক মোটরবাইক ট্যাক্সিসেবা পাঠাওয়ের কাস্টমার রিলেশন ব্যবস্থাপক সালেহা ফারহাজ আজিজ বলেন, যানজটের কথা মাথায় রেখেই ঢাকায় এ সেবা চালু করা হয়েছে। ঢাকার রাস্তায় বতর্মানে তাদের ৫০০ চালক আছেন, যাঁরা চুক্তি ভিত্তিতে এই প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যুক্ত। সকাল ১০টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত তাঁদের সেবা পাওয়া যাবে। সালেহা বলেন, দিনে হাজারের বেশি গ্রাহক তাঁদের সেবা নিচ্ছেন। অ্যাপের মাধ্যমে সেবা চাওয়ার পর গ্রাহকের ঠিকানায় পৌঁছাতে ১৫ মিনিট সময় লাগে।

এসব সেবা বিশ্ববিদ্যালয়পড়ুয়ার পাশাপাশি বেকার যুবকদের আয়ের উৎস হয়েছে। নিজের একটি হোন্ডা, ড্রাইভিং লাইসেন্স থাকলেই এ সেবায় নাম নিবন্ধন করা যাচ্ছে। সঙ্গে থাকতে হচ্ছে একটি ১ জিবি র‍্যামের অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল ফোন ও সার্বক্ষণিক ইন্টারনেট সংযোগ। এ সেবায় যুক্ত হতে নিতে হচ্ছে একটি ছোট প্রশিক্ষণ। রাজধানীর বনানীর পাঠাও অফিসের নিচে গত সপ্তাহে কথা হয় প্রশিক্ষণ নেওয়া পাঁচ বন্ধুর সঙ্গে। সবাই বিশ্ববিদ্যালয়পড়ুয়া। তাঁরা হলেন রায়ান, মামুন, শতাব্দী, জনি ও কলি। তাঁরা জানালেন, শখের বশেই প্রশিক্ষণ নিয়েছেন। প্রয়োজন মনে করলে মোটরবাইক ভাড়ায় দেবেন। রায়ান গত সোমবার মুঠোফোনে জানান, এক দিনেই খরচ বাদে ৬০০ টাকা আয় হয়েছে। এভাবে ভালো একটা বন্ধুও জুটেছে। এখন প্রতিদিনই দু-তিনটি ভাড়া ফরমাশ নেন তিনি। সেটা অবসর সময়ে, সুবিধামতো।

ছবি: পাঠাও ডট কম

🖌 মতিঝিল থানার ওসিসহ ৪ পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির মামলা

রাজধানীর মতিঝিল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওমর ফারুকসহ ৪ পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে চাঁদা দাবির অভিযোগে ঢাকা মহানগর হাকিমের আদালতে মামলা দায়ের করা হয়েছে। রবিবার মামলাটি দায়ের করেন মতিঝিল থানা আওয়ামী জনতা লীগের সহ-সভাপতি আবুবক্কর সিদ্দিক। মামলাটি আমলে নিয়ে ২০ আগস্টের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য ডিবি পুলিশকে  নির্দেশ দিয়েছেন ঢাকা মহানগর হাকিম সত্যব্রত সিকদার। আদালতের বেঞ্চসহকারী আশিকুর রহমান মামলা দায়েরের বিষয়টি বাংলা ট্রিবিউনকে নিশ্চিত করেছেন।

মামলার অন্য আসামিরা হলেন মতিঝিল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মনির হোসেন, উপ-পরিদর্শক রকিব ও মোস্তাফিজ। আদালত বাদীর জবানবন্দি গ্রহণ শেষে মামলাটি আমলে নিয়ে ডিবি পুলিশকে তদন্ত করে আগামী ২০ আগস্টের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন।

এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, গত ১০ মে মামলার বাদীকে গ্রেফতার করে মতিঝিল থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। এ সময় তার কাছে এক লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন আসামিরা। বাদী দিতে অসম্মতি জানানলে আসামিরা তাকে মারধর করেন এবং পেন্ডিং মামলায় জড়ানোর হুমকি দেন। এরপর স্থানীয়রা এসে তাকে উদ্ধার করে নিয়ে যান।